অধিক উপার্জন ও বেশি সঞ্চয়ের ৪ উপায়

নিজের আয় বাড়াতে কে না চায়? সেই সাথে সঞ্চয়? মোট কথা, ছোটবেলা থেকে এত এত পড়াশোনা, খাটুনি, পরীক্ষা আর নিরন্তর ছুটে চলা- এসব তো আরেকটু ভালো থাকার জন্যেই, নাকি? আর ভালো থাকতে হলে দরকার ভালো উপার্জনের। কিন্তু টাকা কি ডিম পাড়ে নাকি যে রেখে দিলেই বেড়ে যাবে? না! সেটা হয়তো যাবেনা। কিন্তু ইচ্ছে করলেই আপনার যতটুকু আছে সেটুকু কাজে লাগিয়েই আপনি বাড়িয়ে তুলতে পারেন আপনার উপার্জন ও সঞ্চয়ের পরিমাণকে। কী করে? আসুন জেনে নিই!

১. লাভজনক ব্যবসা প্রতিদিনকার নিত্তনৈমিত্তিক কাজের পাশাপাশি শুরু করুন কোন ব্যবসা। টাকাকে বসিয়ে না রেখে কাজে লাগান। আর কাজে লাগানোর ক্ষেত্রে মাথায় রাখুন একটি ব্যাপার। এমন কোন কাজের সাথে নিজেকে জড়াবেন যেখানে আপনার উপস্থিতির দরকার পড়বেনা। দূর থেকেই সেটাকে বাড়িয়ে তুলতে পারবেন আপনি। এছাড়াও সেটা নিয়ে ভাবুন যেটার চাহিদা কখনোই শেষ হবেনা।

২. দক্ষ হয়ে ওঠা ব্যাপারটা কষ্টকর হলেও সত্যি যে আপনি যতটা দক্ষ হবেন আপনাকে ঠিক ততটাই দেওয়া হবে বিনিময়ে। আর তাই নিজের দক্ষতাকে ফুটিয়ে তুলুন কাজে। ধরুন- আপনি রোজ অফিসে গেলেন, কাজ করলেন, বাসায় ফিরলেন। আপনার কাজ যদি এমনটাই হয় তাহলে আপনার মাস শেষের টাকাটাও তেমনই রয়ে যাবে। আর তাই নতুন নতুন ব্যাপার শিখুন, প্রশিক্ষণ নিন, আরো বেশি যোগ্য প্রমাণ করুন নিজেকে। টাকা এমনিতেই কড়া নাড়বে আপনার দরজায়।

৩. সয়ংক্রিয় সঞ্চয় অনেকে টাকা হাতে এলেই খরচ করে ফেলেন কিংবা সারামাস ধরে টাকা জমানোর কথা ভাবলেও শেষ মুহূর্তে হাতছাড়া করে ফেলেন সেটা। আর তাই সয়ংক্রিয় সঞ্চয়ের চেষ্টা করুন। অনেক অফিসে সঞ্চয়ের জন্য স্কিম আছে অনেক। যেগুলোতে যোগ দিলে নিজ থেকেই বেতনের টাকা থেকে সঞ্চয়ের টাকাটুকু কেটে নেবে আপনার অফিস। জমা হয়ে যাবে সেটি। এছাড়াও খুঁজুন এমন কোন উপায় যেটা আপনার জন্যে যথেস্ট কাজের। বাজারে ছেয়ে আছে হাজারটা ব্যাংক আর তাদের সুবিধা। সেগুলো থেকে নিজের উপকারী সুবিধাটি গ্রহণ করুন।

৪. সমবায় সঞ্চয় অফিসের সব কলিগেরা মিলে কিংবা বন্ধুরা সবাই মিলে মাসে মাসে এক জায়গায় কিছু টাকা জমিয়ে কোন জায়গা কেনা- এটা বেশ প্রচলিত একটি ব্যাপার। বিশেষ করে আমাদের দেশে। চেষ্টা করে দেখুন এ পদ্ধতিটিও। এতে করে আপনার টাকাটা পড়ে না থেকে দিনকে দিন বাড়বে কেবল। কারণ সবাই মিলে কোন একটি জায়গা কিনে রাখলে সেখানে বাড়ি তৈরি করুন কিংবা না করুন, মনে রাখবেন- জমির দাম কমে না, বাড়ে।